রাজধানীর কাওরানবাজার এলাকা থেকে প্রাইভেটকারের গ্যাস সিলিন্ডারের ভিতর লুকায়িত ২৪,৮০০ পিস ইয়াবাসহ ৩ জন গ্রেফতার করেছে র‌্যাব, প্রাইভেটকার জব্দ ।। news10tv.com

বিশেষ প্রতিনিধি : মোঃনাজমুল ইসলাম মনটু।

0 ৮৪

 

রাজধানীর কাওরানবাজার এলাকা হতে প্রাইভেটকারের গ্যাস সিলিন্ডারের ভিতর লুকায়িত ২৪,৮০০ পিস ইয়াবাসহ ৩ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। প্রাইভেটকার জব্দ। র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সবসময়ই মাদক উদ্ধারের ক্ষেত্রে অত্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে এবং এই পর্যন্ত বিপুল পরিমাণ দেশী/বিদেশী অবৈধ মাদক উদ্ধার করে সাধারণ জনগণের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। মাদক ব্যবসায়ীরা প্রতিনিয়ত মাদক পরিবহনে নিত্য নতুন ও অভিনব কৌশল অবলম্বন করে আসছে।

মিয়ানমার হতে নৌ-পথে আগত ইয়াবা ট্যাবলেটের চালানগুলো কক্সবাজার হতে সড়ক, রেল ও বিমানপথে ছড়িয়ে পড়ছে সারাদেশে। র‌্যাব এ সকল মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে দীর্ঘদিন ধরে গোয়েন্দা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-২ এর একটি বিশেষ দল ১৫/০১/২০২১ইং ০০:০৫ ঘটিকায় অভিযান পরিচালনা করে রাজধানীর তেজগাঁও থানাধীন কাওরানবাজারস্থ বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস কর্পোরেশন এর গেইটের সামনে পাঁকা রাস্তার উপর হতে ২৪,৮০০ (চব্বিশ হাজার আটশত) পিস ইয়াবাসহ ১। মোহাম্মদ আলী হোসেন(৪৫), ২। মোঃ জাকির হোসেন(৪০), ৩। মোঃ জুয়েল হোসেন(২৭)কে গ্রেফতার করে।

চলমান মাদক বিরোধী অভিযানের ধারাবাহিকতায় ১৪/০১/২০২১খ্রিঃ তারিখ সময় ২৩.৪৫ ঘটিকায় র‌্যাব-২ এর আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, মাদক ব্যবসায়ীর একটি চক্র কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে একটি প্রাইভেট কারে করে ইয়াবার একটি বড় চালান নিয়ে রাজধানীর ঢাকার কাওরানবাজার এলাকায় হস্তান্তরের উদ্দেশ্যে আসছে। উক্ত মাদকের চালানটি রাত্র ১২ টার পর যেকোন সময় কাওরান বাজার এলাকায় সুবিধাজনক স্থানে হস্তান্তর করবে। উক্ত সংবাদ এর সত্যতা যাচায়ে র‌্যাব-২ এর আভিযানিক দল রাজধানীর তেজগাঁও থানাধীন কাওরানবাজারস্থ বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস কর্পোরেশন এর গেইটের সামনে পাঁকা রাস্তার উপর চেক পোস্ট স্থাপন করে সন্দেহজনক প্রাইভেট কার থামিয়ে তল্লাশী কারতে থাকে। অতপর ০০.০৫ ঘটিকার সময় ১টি সাদা রংয়ের প্রাইভেট কার উক্ত স্থানে পৌঁছালে কারটি সন্দেহ হলে থামার জন্য সংকেত দিলে গাড়িটি চেক পোস্টের সামনে রাস্তার পাশে থামায়। উক্ত প্রাইভেটকারের মধ্যে থাকা চালকসহ তিন জন ব্যক্তিকে কোথায় থেকে আসছে জানতে চাইলে তারা কক্সবাজার টেকনাফ থেকে আসছে বলে স্বীকার করে। উক্ত ব্যক্তিদের সন্দেহ হলে তখন তাদেরকে ইয়াবার চালান সংক্রান্ত বিষয়ে জিজ্ঞাসাবদ করলে প্রথমে তারা অস্বীকার করলেও পরবর্তীতে তাদের গাড়িতে লুকিয়ে রাখা নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য(ইয়াবা ট্যাবলেট) আছে বলে স্বীকার করে। আসামীদের দেওয়া তথ্য মতে প্রাইভেটকারের গ্যাস সিলিন্ডার বিশেষ কায়দায় কেটে গ্যাস সিলিন্ডারের ভিতরে লুকিয়ে রাখা ২৪,৮০০ (চব্বিশ হাজার আটশত) পিস ইয়াবা মাদক পাওয়া যায়। গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, দেশের আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখকে ফাঁকি দিয়ে কক্সবাজার হতে অভিনব পন্থায় (গাড়ির গ্যাস সিলিন্ডার)কেটে গ্যাস সিলিন্ডার এর ভিতরে ইয়াবা ঢুকিয়ে ঝালাই করে ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্রয় ও সরবরাহ করে আসছিল। এছাড়াও গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য যাচাই বাছাই করে ভবিষ্যতেও এ ধরনের মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.