আশুলিয়ায় মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসিয়ে প্রতিপক্ষ ঘায়েলের চেষ্টা ,সঠিক তদন্তের দাবী স্বজনদের ।। news10tv.com

নিজস্ব প্রতিবেদক :

0 ১৬৯

 

শিল্পাঞ্চল আশুলিয়ায় ছিনতাই ও ধর্ষণ চেষ্টায় জড়িত থাকার মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসিয়ে প্রতিপক্ষ ঘায়েলের চেষ্টা করছে একটি কুচক্রী মহল । শুধু হয়রানির উদ্দেশ্য থানায় সম্পূর্ন ভীত্তিহীন অভিযোগ দায়ের করেছেন বলেও অভিযোগ করেন, অভিযুক্তদের স্বজনরা ।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায় , আশুলিয়ার চিত্রশাইল এলাকার এক গার্মেন্টস কর্মী নারী শ্রমিক গত ২৫/১০/২০ ইং তারিখে রাত্র আনুমানিক ৯.৫০ মিনিটে কর্মস্থল থেকে বাসায় আসার পথে চিত্রশাইল কাঠাল তলা মোড় লিটন হাউজিং এর কাছাকাছি গেলে, হঠাৎ কয়েকজন মুখোশ ধারি লোক এসে কোন কিছু না বলেই আমাদের ঘিরে ফেলে এবং ঐ নারী শ্রমিক ও তার সঙ্গীয় শ্রমিক স্বাধীনকে এলোপাথারি মারধর করে ফাঁকা যায়গায় নিয়ে যায় এবং গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন কানে থাকা
স্বর্ণের দুল সাথে নগদ ১ হাজার টাকা সহ মোট ৪৬ হাজার ৩৭৫ টাকা ছিনিয়ে নেয়।এবং সেই সাথে নারী শ্রমিককে ধর্ষনের চেষ্টা করে। এসময় সঙ্গীয় স্বাধীনের চিৎকার চেঁচামেচি শুনে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসে। লোকজনের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত পালিয়ে যায় ছিনতাইকারীরা। এই বিষয়ে গত ২৬/১০/২০ ইং তারিখে নাঈম (২০), সিহাব (১৯),জুলহাস(২০), সাগর (২১) এর নাম উল্লেখ করে, আশুলিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয় ।

তবে অভিযোগের বিষয়টি সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্রমূলক উল্লেখ করে অভিযুক্তের স্বজনরা জানান, তারা নিজেদের কু-স্বার্থ চরিতার্থ করতে এবং আসল অপরাধীদের আড়াল করতে, নির্দোষ ও নিরিহ ব্যাক্তিদের নামে ষড়যন্ত্রমূলক অভিযোগ দিয়ে হয়রানি করছেন। উক্ত অভিযোগে যাদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে তারা ঘটনার দিন নিজ এলাকা হতে কয়েক কিলোমিটার দূরে পূজা উৎসবে অংশ নিয়েছিলো। ঘটনার সময় যেহেতু তারা অনেক দুরে ছিলো, তারপরও তাদের নাম আসায় বিষয়টি অত্যান্ত রহস্যজনক। পুলিশ আন্তরিকতার সাথে তদন্ত করলে সঠিক তথ্য বেরিয়ে আসবে, সাথে থলের বিড়াল বেরিয়ে পড়বে।

স্থানীয় যুবলীগ নেতা মোঃ আমির হোসেন জানান, অপরাধ করলে আইনি প্রক্রিয়ায় শাস্তি পাবে, আইন আইনের গতিতে চলবে। তবে আইনের অপব্যবহার রোধে সঠিক তদন্তের বিকল্প নেই। কেউ যেন প্রতিপক্ষকে ঘায়েলের উদ্দেশ্য গায়েবি অভিযোগ করে পার না পায়। উক্ত অভিযোগের বিষয়ে আমার অনুরোধ পুলিশ অধিকতর তদন্ত করে প্রকৃত দোষীকে শাস্তির আওতায় নিয়ে আসবেন।

অভিযোগের বিষয়ে আশুলিয়া থানা পুলিশের উপ- পরিদর্শক ( এস আই) মোঃ জসিম উদ্দিন জানান, গত ২৬/১০/২০ ইং তারিখে ভুক্তভুগী নারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ বিষয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও প্রাথমিক তদন্ত করা হয়েছে। ওখানে অজ্ঞাত কিছু লোক দোকানপাটে বাইড়া বাইড়ি করেছে। তবে তাদের কেউ চিনতে বা পরিচয় সনাক্ত করতে পারিনি। তদন্ত শেষে আরো বিস্তারিত জানা যাবে। বর্তমান বিষয়টি মামলার প্রক্রিয়াধীন।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.