আলোচিত মিডিয়া ব্যক্তিত্ব হিরো আলমকে নিজের সিনেমা থেকে বাদ দিয়েছেন চিত্র নায়ক অনন্ত জলিল ।। – news10tv.com

নিউজ ডেক্স :

0 ১৩৬
আলোচিত মিডিয়া ব্যক্তিত্ব হিরো আলমকে নিজের সিনেমা থেকে বাদ দিয়েছেন চিত্র নায়ক অনন্ত জলিল। বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) হিরো আলমকে নিজেই ফোন করে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান অনন্ত জলিল। সময় সংবাদকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হিরো আলম ওরফে আশরাফুল আলম। 
এরপর একই ইস্যুতে ফেসবুকে পোস্টের মাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল। কেন তিনি ছবি থেকে হিরো আলমকে বাদ দিয়েছেন।
অনন্ত জলিলের সেই ফেসবুক পোস্টের পর এবার ফেসবুক লাইভে এসে অনন্ত জলিলকে কড়া জবাব দিয়েছেন হিরো আলম নিজেই। মিথ্যা অভিযোগে সিনেমা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন হিরো আলম।
নিউজ টেন এর পাঠকদের জন্য হিরো আলমের ফেসবুক লাইভের সেই বক্তব্য তুলে ধরা হলো-
‘আপনারা সবাই শুনেছেন অনন্ত জলিলের সিনেমা থেকে হিরো আলমকে বাদ দেয়া হয়েছে। বাদ দেয়ার কারণ লিখে অনন্ত জলিল নিজেও ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, আমার কিছু স্ক্যান্ডাল ভিডিও ও জায়েদ খানের বিরুদ্ধে কথা বলায় তিনি আমাকে তার সিনেমা থেকে বাদ দিয়েছেন। এগুলো সবই মিথ্যা কথা। হিরো আলম সব সময় সত্য কথা বলে এবং মৃত্যুকে ভয় পায় না। মূল কথা হলো বুধবার (১৫ জুলাই) এফডিসিতে প্রযোজক সমিতিতে ১৮ দলের একটি সংবাদ সম্মেলন ছিল। সেখানে অনেকেই অনেক বক্তব্য দিয়েছেন। আমাকেও অনুরোধ করা হয় কিছু বলার জন্য। সেখানে আমি জায়েদ খানের পক্ষে বা বিপক্ষে কোনো মন্তব্যই করিনি।
বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) দুপুরে অনন্ত জলিল ভাই আমাকে ফোন করে বলেন, আমি অনেক বড় মুখ করে জায়েদ খানের সাথে তোমাকে মিলিয়ে দিয়েছি। তুমি আমার বড় মুখ ছোট করে দিলে। তুমি কাল জায়েদ খানের বিরুদ্ধে কথা বলেছ। তুমি আমার সম্মান রাখনি, তাই আমিও তোমাকে আমার ছবি থেকে বাদ করে দিলাম।
যাই হোক, উনি আমাকে ছবি থেকে বাদ দিলেও আমার দুঃখ নেই। সত্য কথা বললে, যদি সেটা অন্যায় হয়ে যায় তাহলে আমার কিছু যায় আসে না। হিরো আলম কারো সহযোগিতায় এ জায়গায় আসেনি। আমি কোনো দিন অনন্ত জলিলের ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ চেয়ে তাকে ফোনও দেইনি। হিরো আলম কখনো অনন্ত জলিলের পায়ের নিচে মাথা নত করে থাকবে না ছবিতে অভিনয়ের জন্য।
তবে অনন্ত জলিলকে আমি বলতে চাই, হিরো আলমকে সবাই ব্যবহার করে। আপনিও আমাকে ব্যবহার করলেন। ছোট সিনেমা বানালেও আমিও একজন প্রযোজক। আমাকে কেউ ছবি থেকে বাদ দিলেও আমার কিছু যায় আসে না।
হিরো আলম আরো বলেন, অনন্ত জলিল অনেক দানশীল ব্যক্তি। তার মানে এই না, সাইনিং মানির ৫০ হাজার টাকা আমি উনাকে ফেরত দেব না। দরকার হলে এরচেয়েও বেশি দিয়ে দেব। আপনার হয়তো টাকা আছে। তবে টাকার গরম বা অহংকারে সবাই কিনতে আসবেন না দয়া করে।
অনন্ত জলিল নিজে কিছু দেখেননি। জায়েদ খানের কান কথা শুনে আমাকে সিনেমা থেকে বাদ দিয়েছেন। তাই অনন্ত জলিলের কাছে অনুরোধ, আমি সেই সংবাদ সম্মেলনে কি বলেছি তা আগে আপনি ভিডিওতে দেখবেন ও শুনবেন। তারপর আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাবেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.